লেবাননে ফিলিস্তিনি শরণার্থী শিবিরে সংঘর্ষে নিহত ৬

লেবাননে ফিলিস্তিনি শরণার্থী শিবিরে সংঘর্ষে নিহত ৬
সংঘর্ষের কারণে ঘর ছেড়ে পালাচ্ছেন ফিলিস্তিনি শরণার্থী ক্যাম্পের নারীরা - সংগৃহীত ছবি

লেবাননে ফিলিস্তিনি শরণার্থী শিবিরে ঘটেছে সংঘর্ষের ঘটনা। এতে ছয়জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে একজন ফাতাহ কমান্ডার রয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছে ফাতাহ আন্দোলন।

আজ সোমবার (৩১ জুলাই) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের ফাতাহ আন্দোলন এবং প্রতিদ্বন্দ্বী অন্য ইসলামপন্থি দলগুলোর মধ্যে আইন আল-হিলওয়েহ ক্যাম্পে সংঘর্ষ শুরু হয়।

গত শনিবার ইসলামপন্থি আল-শাবাব আল-মুসলিম গোষ্ঠীর একজন সদস্য নিহত হন। এর জের ধরে এ সংঘর্ষের শুরু হয় বলে জানিয়েছে ক্যাম্পের একটি সূত্র।

পরে এ উত্তেজনা ও সহিংসতা রোববার সারাদিন চলে এবং এতে ফাতাহ কমান্ডার আশরাফ আল-আরমাউচি ও তার চার সহযোগী নিহত হন।

এক বিবৃতিতে লেবাননের ফিলিস্তিনি শিবিরগুলোর ‘নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা’ ক্ষুণ্ণ করার লক্ষ্যে ‘জঘন্য ও কাপুরুষোচিত অপরাধ কার্যক্রমের’ নিন্দা করেছে ফাতাহ।

এদিকে, সহিংসতায় ছয়জন নিহতের পাশাপাশি লেবাননের বেশ কয়েকজন সেনাও আহত হয়েছেন বলে লেবাননের সেনাবাহিনী জানিয়েছে।

ইউএন এজেন্সি ফর প্যালেস্টিনিয়ান রিফ্যুজিস ইন লেবাননের (ইউএনআরডব্লিউএ) পরিচালক ডরোথি ক্রাউস বলেছেন, শিবিরে সংস্থার সব কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে।

তিনি ‘সকল পক্ষকে বেসামরিক নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং আইনকে সম্মান করার আহ্বান জানান।

জাতিসংঘ জানায়, ১৯৪৮ সালে স্থাপিত অস্থিতিশীল আইন আল-হিলওয়েহ শিবিরটি লেবাননের বৃহত্তম এবং এখানে ৬৩ হাজারেরও বেশি নিবন্ধিত শরণার্থী রয়েছে। তবে ধারণা করা হয়, এখানে প্রকৃত শরণার্থীর সংখ্যা আরও বেশি।

সংবাদ সূত্রঃ বিবিসি