টাইটানের ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার; থাকতে পারে আরোহীদের দেহাবশেষও: মার্কিন কোস্ট গার্ড

টাইটানের ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার; থাকতে পারে আরোহীদের দেহাবশেষও: মার্কিন কোস্ট গার্ড
কানাডার নিউফাউন্ডল্যান্ড ও লাব্রাডারের সেইন্ট জন’স বন্দরে টাইটানের ধ্বংসাবশেষ উদ্ধারের পর আনা হয় - সংগৃহীত ছবি

মার্কিন কোস্ট গার্ড বলেছে, সাবমেরিন টাইটানের যে ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার করা হয়েছে, তার মধ্যে আরোহীদের দেহাবশেষও থাকতে পারে। বুধবার (২৮ জুন) আটলান্টিক মহাসাগরের তলদেশ থেকে টাইটানের ধ্বংসাবশেষ তুলে আনার পর কোস্ট গার্ড কর্মকর্তারা এক বিবৃতিতে এ কথা বলেছেন।

রুশ সংবাদমাধ্যম আরটির এক প্রতিবেদন মতে, এদিন বিধ্বস্ত সাবমেরিন টাইটানের বেশিরভাগ অংশই পানির নিচ থেকে উদ্ধারের পর তা কানাডার নিউফাউন্ডল্যান্ড ও লাব্রাডারের সেইন্ট জন’স বন্দরে আনা হয়। সেগুলো এখন যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

সাবমেরিনের পেছনের অংশও পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে মার্কিন কোস্ট গার্ড। এক বিবৃতিতে এর কর্মকর্তারা বলেছেন, সমুদ্রের তলদেশ থেকে সাবমেরিনের যে ধ্বংসাবশেষ ও আলামত উদ্ধার করা হয়েছে তার মধ্যে সম্ভবত মানুষের দেহাবশেষও রয়েছে।

আশা করা হচ্ছে, যে ত্রুটির কারণে সাবমেরিনটিতে বিস্ফোরণ ঘটেছে তা খুঁজে বের করতে এই ধ্বংসাবশেষ সাহায্য করবে। মার্কিন কোস্ট গার্ড প্রধান ক্যাপ্টেন জেসন নিউবাউয়ার বলেন, ‘উপকূল থেকে এমন দূরত্ব ও গভীরতায় গুরুত্বপূর্ণ আলামত উদ্ধার ও সংরক্ষণের জন্য সমন্বিত আন্তর্জাতিক সহায়তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ।’

গত ১৮ জুন টাইটানিকের ধ্বংসাবশেষ দেখতে রওনা হওয়ার কিছুক্ষণ পরই নিখোঁজ হয় ওশানগেট কোম্পানির সাবমেরিন টাইটান। মূলত রওনা হওয়ার পরপরই এটা বিস্ফোরিত হয়।

চারদিনের অনুসন্ধানের পর গত বৃহস্পতিবার (২২ জুন) টাইটানিকের ধ্বংসাবশেষের কাছে সাবমেরিনটির ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পায় মার্কিন কোস্ট গার্ড। সাবমেরিনটিতে একজন পাইলট ও ওশানগেটের প্রধান নির্বাহীসহ মোট পাঁচজন যাত্রী ছিলেন। বিস্ফোরণে সবার মৃত্যু হয়েছে।

কেন এবং কীভাবে সাবমেরিন টাইটান ধ্বংস হয়, সে ব্যাপারে মার্কিন কোস্ট গার্ড আগেই বলেছে, সমুদ্রের তলদেশে ডুবোযানটি পানির অস্বাভাবিক চাপ নিতে পারেনি। এ কারণেই ভয়ঙ্কর অন্তর্মুখী বিস্ফোরণের কারণে মিলিসেকেন্ডের মধ্যেই ডুবোযানটি টুকরো টুকরো হয়ে যায়।

বিষয়টির সত্যতা মেলে মার্কিন নৌবাহিনীর বক্তব্য থেকেও। বাহিনীর এক কর্মকর্তা জানান, টাইটান যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পরপরই বিস্ফোরণের মতো শব্দ শনাক্ত করা হয়েছিল। এমনকি সে খবর তারা যুক্তরাষ্ট্রের কোস্টগার্ডকে দ্রুত জানিয়েও দিয়েছিলেন। কিন্তু শব্দ শনাক্ত হওয়ার এ তথ্য আগে কেন প্রকাশ্যে বলা হয়নি, তা স্পষ্ট নয়।

সংবাদ সূত্রঃ আরটি