ফেসবুক লাইভে এসে বাবা-মা ও ছেলের আত্মহত্যা

টাকা নিয়ে মেয়ে নয়ছয় করেছে। সেজন্য লোকজন বাড়িতে এসে বাবা, মা, ভাইকে অপমান করে যান। যা-তা কথাও বলে যায়। আর এই অপমান সইতে পারেনি পরিবার। সমুদ্র সৈকতে ফেসবুক লাইভে গিয়ে আত্মহত্যা করেন বাবা, মা আর ছেলে।

গত রবিবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের দক্ষিণ ২৪ পরগনার বকখালি এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। মৃতদের নাম শ্যামল নস্কর (৫৩), রীতা নস্কর (৪৩) এবং অভিষেক নস্কর (২৫)। জানা যায়, শ্যামলের মেয়ের নাম পুনম দাস। তিনি বিবাহিত। ডায়মন্ড হারবার থানার সুলতানপুরের বাসিন্দা। তার স্বামী মিঠুন দাস মাছের আড়তের কর্মী। এই পুনমের বিরুদ্ধেই দিন কয়েক আগে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর টাকা নয়ছয়ের অভিযোগ ওঠে।

জানা গেছে, গত শনিবার রাতে পুনমের বাড়িতে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর কিছু নারী সদস্য চড়াও হয়ে বিক্ষোভ দেখান। পুনমের সামনেই তার বাবা, মাকে চূড়ান্ত অপমান করেন। মারধর করা হয়। হুমকিও দেওয়া হয়। ওই রাতেই থানায় অভিযোগ করেন শ্যামল নস্কর। তারপর গতকাল রবিবার সকালে স্ত্রী রীতা ও ছেলে অভিষেককে নিয়ে বকখালির সমুদ্র সৈকতে চলে যান তারা।

সেখানে ছেলে অভিষেকের ফোন থেকে ফেসবুক লাইভ করে আত্মহত্যা করেন তারা। এর পরেই পুলিশ স্বনির্ভর গোষ্ঠীর পাঁচ নারীকে আটক করে। তারাই হেনস্থা করেছিলেন নস্কর পরিবারকে বলে অভিযোগ। এছাড়া পুনম ও তার স্বামীকেও আটক করা হয়।