কেউ কারও হাতে মার খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে কি চেক ইন দেয়: তমা

সংগৃহীত ছবি

অনেক দিন হাসপাতালে কাটিয়ে সম্প্রতি বাসায় ফিরেছেন অভিনেত্রী তমা মির্জা। সুস্থ হয়েই নতুন সিনেমার কাজ শুরু করবেন, তিনি বলেছিলেন। গত কোরবানির ঈদে তার অভিনীত সুড়ঙ্গ’ ছবিটি মুক্তি পায়। রায়হান রাফি পরিচালিত এই চলচ্চিত্রটি ব্যবসায়িক ভাবে সাফল্য পেয়েছে।

তবে সম্প্রতি রাজ-পরীমনি দ্বন্দ্বে উঠে এসেছে তার নাম। তমা নাকি রাজ-পরীমনির মারামারি ঠেকাতে গিয়ে আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তবে তিনি এই গুঞ্জনের রহস্য খোলাসা করে দিয়েছেন।

তমার মতে, প্রথম প্রশ্নটি হল কেউ কারও হাতে মার খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে কি চেক ইন দেয়? আমি কিন্তু হাসপাতালে ঢুকেই সেটি দিয়েছি। দ্বিতীয়ত আমি সেই মেয়ে, যে স্বামীর হাতের মার খেয়ে ঘর ছেড়েছি। সেটার প্রকাশ্য প্রতিবাদ করার জন্য যা যা করা দরকার করেছি। তো সেই মেয়েটিকে অন্য কারও জামাই এসে মেরে চলে যাবে, আর আমি চুপচাপ হাসপাতালে শুয়ে কাঁদব, সেটা তো কল্পনাই করতে পারি না।

তমা এদিকে সুরঙ্গা সিনেমার পোস্ট-প্রোডাকশন ক্যাম্পেইনের জন্য নতুন কোনো প্রজেক্ট শুরু না করার পরামর্শ দিয়েছেন। এভাবে গত তিন মাস শুটিংয়ে অনুপস্থিত ছিলেন তিনি। নতুন ছবির জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন এই অভিনেত্রী। মুভিজ এটি প্রযোজনা করবে। তিনি ইতিমধ্যে একটি চুক্তি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এই পরিস্থিতিতে শরীর বেশ খারাপ ছিল, তমা মন্তব্য করেন। এমনকি আমি সিনেমায় যুক্ত হয়ে মনে হয়েছে অনেকটাই সুস্থ হয়ে গেছি।

খুব শিগগিরই ছবিটির নির্মাণ কাজ শুরু হবে বলে জানা গেছে। মুভিটির নাম, নায়ক এবং পরিচালক বর্তমানে প্রযোজনা সংস্থা গোপন রেখেছে।

তবে তমা জানিয়েছেন, টিএমকে নিয়ে তিনটি ছবি নির্মাণ করা হবে। তিনি অবশ্যই সেখানে একটি চলচ্চিত্রে নিজেকে চিত্রিত করছেন। শীঘ্রই তা প্রকাশ্যে আসবে।