সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস আর নেই

সংগৃহীত ছবি

নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও নাটোর-৪ (গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রাম) আসনের পর পর ৫ বারের এমপি সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

আজ সকাল ৭টা ২২ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। মৃত্যুকালে স্ত্রী এক ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মৃত্যুর সময় তার বয়স ছিল ৮০ বছর।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আব্দুল কুদ্দুসের ব্যক্তিগত সহকারী ইব্রাহীম। ইব্রাহীম জানান, শ্বাসকষ্টজনিত কারণে গত শনিবার সন্ধ্যায় সংসদ সদস্য আব্দুল কুদ্দুসকে অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নেওয়া হয়। অক্সিজেনের মাত্রা কমে গেলে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার সকালে না ফেরার দেশে চলে যান তিনি।

সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস ১৯৪৬ সালের ৩০ অক্টোবর জন্মগ্রহণ করেন। তিনি নাটোর-৪ আসন থেকে পঞ্চম, সপ্তম, নবম, দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। সপ্তম সংসদে তিনি মৎস্য ও পশু সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর দ্বায়িত্ব পালন করেন।

সাবেক প্রতিমন্ত্রীর পৈতৃক বাড়ি নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার চলনবিল অধ্যুষিত বিলসা গ্রামে। তিনি রাজশাহী কলেজের নির্বাচিত ভিপি ছিলেন এবং বৃহত্তর রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতে ট্রেনিং নিয়ে মুজিব বাহিনীর আঞ্চলিক কমান্ডার ও সংগঠকের ভূমিকা পালন করেন।

বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। আব্দুল কুদ্দুসের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন সাবেক এমপি মো. আবুল কাশেম সরকার। তিনি তার মৃত্যুতে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।