১০টি ফরাসি বোয়িং বিমান কিনছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স

১০টি ফরাসি বোয়িং বিমান কিনছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স
প্যারিস-ভিত্তিক অত্যাধুনিক ও স্বল্প খরচের বিমান নির্মাতা সংস্থা এয়ারবাস - ফাইল ছবি

দেশের বিমান বহরে বোয়িংয়ের আধিপত্য হ্রাস করে প্যারিস-ভিত্তিক অত্যাধুনিক ও স্বল্প খরচের বিমান নির্মাতা সংস্থা এয়ারবাসের কাছ থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ১০টি বিমান কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আজ সোমবার বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, আমাদের প্রয়োজন অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে ১০টি বিমান কেনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কারিগরি কমিটি এখন মূল্যায়ন করছে।

ফরাসি বিমান নির্মাতা এই সংস্থার কাছ থেকে বাংলাদেশের সরকারি বিমান সংস্থাটি ১০টি এয়ারবাস এ ৩৫০ বিমান কেনার চুক্তির কাছাকাছি পৌঁছেছে বলে একাধিক সূত্র জানিয়েছে।

এমন খবরের মাঝেই এয়ারবাসের কাছ থেকে বিমান কেনার বিষয়ে মন্তব্য করেছেন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী।

তবে সোমবার থেকে ফ্রান্সের রাজধানীতে শুরু হওয়া প্যারিস এয়ার শো-তে চুক্তিটি চূড়ান্ত হবে কি না তা এখনও পরিষ্কার নয় বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

এছাড়া এয়ারবাসও এই বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। অন্যদিকে মন্তব্যের অনুরোধে সাড়া দেয়নি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

মাহবুব আলী বলেছেন, প্রত্যেকটি দেশের বিমানের বহরে এয়ারবাস এবং বোয়িং উভয়ই রয়েছে। আমাদের বহরে একটি এয়ারবাসও নেই।

মার্কিন বিমান নির্মাতার ওপর নির্ভরতা হ্রাস করতে চায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। বিমানের ওয়াইডবডি অর্ডারের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান নির্মাতা বোয়িংয়ের আধিপত্য রয়েছে। ৫১ বছর বয়সী বাংলাদেশের সরকারি বিমান সংস্থার বহরে ২০টিরও বেশি বোয়িং বিমান রয়েছে; যার অর্ধেকই ওয়াইডবডি এবং কয়েকটি ড্যাশ-৮ টার্বোপ্রোপস।

করোনাভাইরাস মহামারি পরবর্তী সময়ে আকাশপথে ভ্রমণ ব্যাপক বৃদ্ধি পাওয়ায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ওয়াইডবডি বিমানের চাহিদা তৈরি হয়েছে। বর্তমানে ব্রিটেন, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড ও কানাডাসহ বিশ্বের ২০টি গন্তব্যে বিরতিহীন বিমান পরিচালনা করছে বিমান বাংলাদেশ।

সংবাদ সূত্রঃ রয়টার্স